কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের বেহাল দশা

বাংলা ইনফোঃ বিশেষ প্রতিনিধি,

কক্সবাজার থেকে টেকনাফের দূরত্ব ৭৯ কিলোমিটার। কিন্তু রাস্তা এতোই সরু যে একটি গাড়ি আরেকটি গাড়িকে ওভারটেক করে সামনে যেতে বেশ হিমশিম খেতে হয়।

সম্প্রতি সরকার একটি উদ্যোগ নিয়েছে,রাস্তার দুপাশে এক হাত করে উভয়পাশে দুহাত করে বাড়ানোর।যাতে গাড়িগুলা স্বাভাবিকভাবে চলাচল করতে পারে।

কিন্তু রাস্তা খোঁড়ার পরে,খুব ধীর গতিতে ভরাট করার কাজ চলছে।অনেক জায়গায় খোঁড়া রাস্তা ভরাট করা হলেও,মাটি থেকে যাচ্ছে নরম।যার ফলে রাতের বেলা গাড়িগুলার জন্য অনেকটা মৃত্যুকূপে পরিণত হয়েছে এই সরু হাইওয়ে।

প্রতিদিন ভোরের আলো ফুটলে দেখা যায় বেশ কিছু ট্রাক, বাস খোঁড়া রাস্তায় পড়ে আছে।যার ফলে যাত্রীদের বেশ অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে।কখনো বা বিশাল জ্যামের সম্মুখীন হচ্ছেন যাত্রীরা।

২০১৭ সালের অক্টোবরে রোহিঙারা আসার পরে এই কক্সবাজার – টেকনাফ সড়ক আগের তুলনায় অনেক ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।তাছাড়া মরিচ্যা বাজার,কোর্টবাজার,উখিয়া বাজার,কুতুপালং বাজারে লোকাল গাড়ির যত্রতত্র পার্কিং এর কারণে,এইসব পয়েন্টে বেশ জ্যাম দেখা যায়।

কক্সবাজার- টেকনাফের বিকল্প সড়ক মেরিন ড্রাইব রোড।১৯৯২ সাল থেকে এই রাস্তার কাজ শুরু হয়ে একেবারে শেষের দিকে।কলাতলী মোড় থেকে সাগড় পাড় পর্যন্ত রাস্তাটির কাজ চলছে খুব ধীর গতিতে।রাস্তাটির কাজ পুরোপুরি শেষ হলেও এর সুবিধা ভোগ করতে পারবে না,বড় বাস কিংবা ট্র্যাক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *